দিল্লি ও ১৫ শহরের মধ্যে মঙ্গলবার থেকে যাত্রীট্রেন, অনলাইনে টিকিট

ভ্রমণ অনলাইন ডেস্ক: একটু একটু করে স্বাভাবিকতার পথে যাওয়ার চেষ্টা করছে ভারতীয় রেল। ধীরে ধীরে শুরু করতে চলেছে যাত্রীট্রেন পরিষেবা।

তৃতীয় দফার লকডাউন শেষ হচ্ছে ১৭ মে। তার আগে আগামী ১২ মে থেকে যাত্রীট্রেন চালানো শুরু হবে। তবে ট্রেন চলবে খুবই সীমিত সংখ্যায়। ১৫ জোড়া যাত্রী ট্রেন চালানো হবে দিল্লি ও ভারতের বিভিন্ন শহরের মধ্যে। রবিবার সন্ধ্যায় রেলের তরফে এক বিবৃতি প্রকাশ করে এই খবর দেওয়া হয়েছে।

তবে ভিড় এড়াতে এখনই স্টেশনের টিকিট কাউন্টার খোলা হবে না। টিকিট পাওয়া যাবে আইআরসিটিসি (IRCTC) ওয়েবসাইটে। সোমবার বিকেল ৪টে থেকে অনলাইনে টিকিট বুকিং শুরু হবে।  

নয়াদিল্লি স্টেশন থেকে ছেড়ে ট্রেনগুলি হাওড়া, ডিব্রুগড়, আগরতলা, পটনা, বিলাসপুর, রাঁচী, ভুবনেশ্বর, সেকেন্দরাবাদ, বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, তিরুঅনন্তপুরম, মাডগাঁও, মুম্বই সেন্ট্রাল, অমদাবাদ এবং জম্মু-তাওয়াই যাবে বলে রেলের তরফে জানানো হয়েছে।          

সমস্ত ট্রেনেই থাকবে এসি কোচ, খুব সীমিত সংখ্যক স্টেশনে দাঁড়াবে। ট্রেনের সময় সম্পর্কে বিশদ তথ্য যথাসময়ে জানানো হবে বলে রেল জানিয়েছে।   

যাত্রীদের স্বাস্থ্য বিধি মেনে ট্রেনে উঠতে হবে। মাস্ক পরে ট্রেনে চড়া বাধ্যতামূলক বলে জানানো হয়েছে। দিল্লিতে ট্রেনে ওঠার আগে যাত্রীদের থার্মাল স্ক্রিনিং করা হবে। কোনো রকম অসুস্থতার উপসর্গ নেই, এমন যাত্রীদেরই ট্রেনে চড়তে দেওয়া হবে এবং শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

আরও পড়ুন রথ তৈরি করা শুরু হয়ে গেল পুরীতে, উৎসব বাতিল হলে অন্য ব্যবস্থা

আপাতত যে যে ১৫ জোড়া ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে, দেখে নিন তাঁদের সূচি –

১) হাওড়া-নয়াদিল্লি-হাওড়া: মঙ্গলবার হাওড়া থেকে বিকেল ৪:৫০ ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে পরের দিন সকাল ১০টায়। ফিরতি ট্রেন বিকেল ৪:৫৫-তে নয়াদিল্লি ছেড়ে হাওড়া পৌঁছোবে পরের দিন সকাল ৯:৫৫-এ। ট্রেনটি আসানসোল, ধানবাদ, পরেশনাথ, গয়া, মুগলসরাই, এলাহাবাদ, কানপুরে থামবে। মঙ্গলবার থেকে রোজ চলবে ট্রেনটি।

২) রাজেন্দ্রনগর (পটনা) -নয়াদিল্লি-রাজেন্দ্রনগর: মঙ্গলবার রাজেন্দ্রনগর থেকে সন্ধ্যা ৭টায় ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে পরের দিন সকাল ৭:৪০-এ। ফিরতি ট্রেন বিকেল ৫:১৫-য় নয়াদিল্লি ছেড়ে রাজেন্দ্রনগর পৌঁছোবে পরের দিন ভোর সাড়ে ৫টায়। মুগলসরাই, এলাহাবাদ আর কানপুরে থামবে। মঙ্গলবার থেকে রোজ চলবে  ট্রেনটি।

৩) নয়াদিল্লি-ডিব্রুগড়-নয়াদিল্লি: মঙ্গলবার নয়াদিল্লি থেকে ছাড়বে বিকেল ৪:১০-এ। ডিব্রুগড় পৌঁছোবে বৃহস্পতিবার সকাল সাতটায়। ফিরতি ট্রেন রাত ৮:৩৫-এ ডিব্রুগড় থেকে ছাড়বে। নয়াদিল্লি পৌঁছোবে তৃতীয় দিন সকাল ১০:১৫-এ। ট্রেনটি তিনিসুকিয়া, মারিয়ানি, দিমাপুর, দিফু, লামডিং, চাপারমুখ, গুয়াহাটি, নিউ বঙ্গাইগাঁও, কোকড়াঝাড়, নিউ কোচবিহার, নিউ জলপাইগুড়ি, কিষাণগঞ্জ, কাটিহার, নৌগছিয়া, বরাউনি, পাটলিপুত্র, দানাপুর, মুগলসরাই, এলাহাবাদ, কানপুরে থামবে। মঙ্গলবার থেকে রোজ চলবে ট্রেনটি।

৪) নয়াদিল্লি-জম্মু তাওয়াই-নয়াদিল্লি: মঙ্গলবার নয়াদিল্লি থেকে ছাড়বে রাত ৮:৪০-এ, জম্মু পৌঁছোবে পরের দিন ভোর ৫:৪৫-এ। ফিরতি ট্রেনটি জম্মু থেকে সন্ধ্যা ৭:৪০-এ ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে বিকেল ৫টায়। ট্রেনটি লুধিয়ানা, পঠানকোট আর কাঠুয়ায় থামবে। মঙ্গলবার থেকে রোজ চলবে ট্রেনটি।

৫) বেঙ্গালুরু-নয়াদিল্লি-বেঙ্গালুরু: মঙ্গলবার রাত ৮টায় বেঙ্গালুরু ছেড়ে দিল্লি পৌঁছোবে বৃহস্পতিবার ভোর ৫:৫৫-য়। ফিরতি ট্রেন বৃহস্পতিবার রাত ৮:৪৫-এ দিল্লি ছেড়ে বেঙ্গালুরু পৌঁছোবে শনিবার সকাল ৬:৪০-এ। ট্রেনটি থামবে শ্রীসত্যসাঁই প্রশান্তি নিলায়ম, ধন্নভরম, অনন্তপুর, গুন্টাকল, রায়চুর, সেরম, সেকেন্দরাবাদ, কাজিপেট, বলহরশাহ, নাগপুর, ইটারসি, ভূপাল, ঝাঁসি, গ্বালিয়র, আগ্রায়। মঙ্গলবার থেকে রোজ চলবে এই ট্রেন।

আরও পড়ুন: ঘরে বসে মানসভ্রমণ: ‘ছোটোনাগপুরের রানি’ নেতারহাট

৬) নয়াদিল্লি-তিরুঅনন্তপুরম-নয়াদিল্লি: এই ট্রেনটি যাত্রা শুরু করবে বুধবার। এর পর প্রতি মঙ্গলবার, বুধবার আর শনিবার নয়াদিল্লি থেকে ছাড়বে। তিরুঅনন্তপুরম থেকে ছাড়বে প্রতি মঙ্গল, বৃহস্পতি আর শুক্রবার। নয়াদিল্লি থেকে সকাল ১০:৫৫-এ ছেড়ে এটি তিরুঅনন্তপুরম পৌঁছোবে তৃতীয় দিন ভোর ৫:২৫-এ। অন্য দিকে ট্রেনটি তিরুঅনন্তপুরম থেকে সন্ধ্যা ৭:১৫-এ ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে তৃতীয় দিন দুপুর ১২:১৫-এ। এই ট্রেনটি থামবে কোল্লম, এর্নাকুলাম, ত্রিসুর, আলেপ্পি, শোরানুর, কোঝিকোড়, কান্নুর, কাসারাগোড, মেঙ্গালুরু, উদুপি, কারওয়ার, মাডগাঁও, সবন্তওয়াড়ি, রত্নগিরি, পনভেল, ভসাই রোড, বডোদরা এবং কোটায়।

৭) নয়াদিল্লি-চেন্নাই-নয়াদিল্লি: এই ট্রেনটি যাত্রা শুরু করবে বুধবার। এর পর প্রতি বুধবার আর শুক্রবার নয়াদিল্লি থেকে ছাড়বে। চেন্নাই থেকে ছাড়বে প্রতি শুক্র আর রবিবার। নয়াদিল্লি থেকে বিকেল ৩:৫৫-এ ছেড়ে এটি চেন্নাই পৌঁছোবে দ্বিতীয় দিন রাত ৮:৪০-এ। অন্য দিকে ট্রেনটি চেন্নাই থেকে সন্ধ্যা সকাল ৬:০৫-এ ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে দ্বিতীয় দিন সকাল ১০:২৫-এ। এই ট্রেনটি থামবে বিজয়ওয়াড়া, ওয়ারাঙ্গল, বলহরশাহ, নাগপুর, ভোপাল, ঝাঁসি, গ্বালিয়র, আগ্রায়।

৮) নয়াদিল্লি-বিলাসপুর-নয়াদিল্লি: এই ট্রেনটি যাত্রা শুরু করবে মঙ্গলবার। এর পর প্রতি, মঙ্গল আর শনিবার নয়াদিল্লি থেকে ছাড়বে। বিলাসপুর থেকে ট্রেনটি ছাড়বে প্রতি সোমবার আর বৃহস্পতিবার। নয়াদিল্লি থেকে বিকেল ৩:৪৫-এ ছেড়ে এটি বিলাসপুর পৌঁছোবে দ্বিতীয় দিন দুপুর ১২টায়। অন্য দিকে ট্রেনটি বিলাসপুর থেকে দুপুর ২টোয় ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে দ্বিতীয় দিন সকাল ১০:৫৫-এ। এই ট্রেনটি থামবে রায়পুর, দুর্গ, রাজনন্দগাঁও, গোন্ডিয়া, নাগপুর, ভোপাল, ঝাঁসি, গ্বালিয়র, আগ্রায়।

৯) নয়াদিল্লি-রাঁচী-নয়াদিল্লি: বুধবার ট্রেনটি নয়াদিল্লি থেকে যাত্রা শুরু করবে। এর পর বুধবার আর শনিবার ট্রেনটি নয়াদিল্লি থেকে ছাড়বে। রাঁচী থেকে ফিরতি ট্রেনটি বৃহস্পতিবার আর রবিবার ছাড়বে। নয়াদিল্লি থেকে বিকেল চারটেয় ছেড়ে এই ট্রেনটি রাঁচী পৌঁছোবে সকাল সাড়ে দশটায়। রাঁচী থেকে বিকেল ৫:১০-এ ছাড়া, নয়াদিল্লি পৌঁছোবে সকাল ১০:৫৫-এ। এই ট্রেনটি বরকাকানা, ডালটনগঞ্জ, গরওয়া রোড, মুগলসরাই, এলাহাবাদ, কানপুরে থামবে।

১০) মুম্বই-নয়াদিল্লি-মুম্বই: এই ট্রেনটি রোজ চলবে। মঙ্গলবার মুম্বই সেন্ট্রাল স্টেশন থেকে বিকেল ৫টায় ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে বুধবার সকাল ৮:৩৫-এ। ফিরতি ট্রেনটি নয়াদিল্লি থেকে বিকেল ৪:২৫-এ ছেড়ে মুম্বই পৌঁছোবে পরের দিন সকাল ৮:১৫-এ। ট্রেনটি বোরিভালি, সুরত, বডোদরা, নাগড়া, কোটায় থামবে।

১১) অমদাবাদ-নয়াদিল্লি-অমদাবাদ: এই ট্রেনটি রোজ চলবে। মঙ্গলবার অমদাবাদ স্টেশন থেকে বিকেল ৫:৪০-এ ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে বুধবার সকাল সাড়ে ৭টায়। ফিরতি ট্রেন নয়াদিল্লি থেকে রাত ৮:৫৫-এ ছেড়ে অমদাবাদ পৌঁছোবে পরের দিন সকাল ৯:৪০-এ। ট্রেনটি সবরমতী, মেহসানা, পালনপুর, আবু রোড, ফলনা, অজমের, জয়পুর, গুরগাঁও, দিল্লি ক্যান্টনমেন্টে থামবে।

আরও পড়ুন ঘরে বসে মানসভ্রমণ: হিমালয়ের কোলে কসৌলি

১২) আগরতলা-নয়াদিল্লি-আগরতলা: আগামী ১৮ মে, এই ট্রেনটি যাত্রা শুরু করবে। আগরতলা থেকে প্রতি সোমবার এই ট্রেনটি চলবে। নয়াদিল্লি থেকে ট্রেনটি ছাড়বে প্রতি বুধবার। আগরতলা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ছেড়ে নয়াদিল্লি পৌঁছোবে তৃতীয় দিন সকাল ১১:২০-এ। ফিরতি ট্রেনটি দিল্লি থেকে সন্ধ্যা ৭:৪০-এ ছেড়ে, আগরতলা পৌঁছোবে তৃতীয় দিন দুপুর দেড়টায়। এই ট্রেনটি থামবে আম্বাসা, ধর্মনগর, নয়া করিমগঞ্জ, বদরপুর, নিউ হাফলং, হোজাই, গুয়াহাটি, কামাখ্যা, রঙ্গিয়া, বরপেটা, নিউ জলপাইগুড়ি, কিষাণগঞ্জ, কাটিহার, নৌগছিয়া, বরাউনি, পাটলিপুত্র, দানাপুর, মুগলসরাই, এলাহাবাদ, কানপুরে।

১৩) ভুবনেশ্বর-নয়াদিল্লি-ভুবনেশ্বর: বুধবার ভুবনেশ্বর থেকে যাত্রা শুরু করবে এই ট্রেনটি। এর পর চলবে প্রতি দিন। সকাল সাড়ে ৯টায় ভুবনেশ্বর থেকে রওনা হয়ে দিল্লি পৌঁছোবে পরের দিন সকাল ১০:৪৫-এ। নয়াদিল্লি থেকে বিকেল ৫:০৫-এ রওনা হয়ে ভুবনেশ্বর পৌঁছোবে পরের দিন বিকেল ৫:২৫। এই ট্রেনটি থামবে কটক, ভদ্রক, বালেশ্বর, হিজলি (খড়গপুর), টাটানগর, মুরি, বোকারো, গোমো, কোডারমা, গয়া, মুগলসরাই, এলাহাবাদ, কানপুরে।

১৪) নয়াদিল্লি-মাডগাঁও-নয়াদিল্লি: শুক্রবার, ১৫ মে নয়াদিল্লি থেকে এই ট্রেনটি ছাড়বে। এর পর শুক্রবার ছাড়াও প্রতি শনিবার ট্রেনটি নয়াদিল্লি থেকে ছাড়বে। মাডগাঁও থেকে ট্রেনটি সোমবার আর রবিবার। এই ট্রেনটি থামবে তিভিম, কুড়াল, রত্নাগিরি, পনভেল, ভসাই রোড, বডোদরা এবং কোটায়।

১৫) নয়াদিল্লি-সেকেন্দরাবাদ-নয়াদিল্লি: রবিবার, ১৭ মে এই ট্রেনটি দিল্লি থেকে ছাড়বে। এর প্রতি সপ্তাহে শুধু রবিবার করেই এই ট্রেনটি চলবে। সেকেন্দরাবাদ থেকে প্রতি বুধবার এই ট্রেনটি ছাড়বে। দিল্লি থেকে বিকেল ৩:৫৫-এ ছেড়ে এই ট্রেনটি সেকেন্দরাবাদ পৌঁছোবে দুপুর ২টোয়। অন্য দিকে সেকেন্দরাবাদ থেকে এই ট্রেনটি দুপুর ১২:৪৫-এ ছেড়ে দিল্লি ঢুকবে পরের দিন সকাল ১০:৪০-এ। এই ট্রেনটি থামবে কাজিপেট, বলহরশাহ, নাগপুর, ভূপাল, ঝাঁসি।

Leave a Reply