আগস্টেই হিরাকুদে শুরু হচ্ছে নৌভ্রমণ, রোমাঞ্চকর অ্যাডভেঞ্চারের স্বাদ পাবেন পর্যটকরা

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: ওড়িশায় বেড়াতে যাওয়া মানেই আমরা ভাবি পুরী, ভুবনেশ্বর, কোনারক, চিল্কা, চাঁদিপুর-পঞ্চলিঙ্গেশ্বর আর গোপালপুর অন সি-র কথা। এর সঙ্গে ইদানীং যুক্ত হয়েছে দারিংবাড়ি ও তৎসন্নিহিত অঞ্চল। কিন্তু এর বাইরেও ওড়িশায় আরও অনেক জায়গা রয়েছে, যা পর্যটকদের আকর্ষণ করতে পারে। তেমনই একটি হল হিরাকুদ।

সম্বলপুর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে মহানদীর উপরে পৃথিবীর দীর্ঘতম নদীবাঁধ হিরাকুদ ড্যাম। হিরাকুদ ড্যামের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে ৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ জলাধার। এ বার সেই জলাধারে নৌভ্রমণের সুযোগ পাবেন পর্যটকরা।

আগামী আগস্টেই চালু হচ্ছে হিরাকুদ জলাধারে ক্রুজ তথা নৌভ্রমণ। দেব্রীগড় বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্যের খুব কাছেই হিরাকুদ জলাধার। ফলে জলাধারে ক্রুজ করলে পর্যটকরা অভয়ারণ্যের সৌন্দর্যও উপভোগ করতে পারবেন। একই সঙ্গে জলপথে ভ্রমণ এবং অভয়ারণ্য দর্শন, দুটোই হবে। এই অঞ্চল ইকো-ট্যুরিজমের জনপ্রিয় কেন্দ্র হয়ে উঠবে, যার সঙ্গে জড়িয়ে থাকবেন স্থানীয় মানুষজন।

ওড়িশা বন আধিকারিকদের সূত্রে জানা গিয়েছে, হিরাকুদ ক্রুজ একটি ভ্রমণ প্যাকেজের অংশ হবে। এই প্যাকেজেই থাকবে পাখি দেখা (Bird watching) এবং বন্যপ্রাণী দেখা (Wildlife sightseeing)। বন্যপ্রাণী সাইটসিয়িং-এর জন্য বিখ্যাত দেব্রীগড় বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য। বন্যপ্রাণীরা প্রায়ই আসে জলাধারে জল খেতে। আর এটাই বন্যপ্রাণী দেখার ক্ষেত্রে সুযোগ করে দেবে পর্যটকদের।

হিরাকুদ ডিভিশনের ডিভিশনাল ফরেস্ট অফিসার অংশু প্রাজ্ঞ দাস জানান, প্রতিটি ব্যাচে ৮ জন করে পর্যটক থাকবেন এবং ক্রুজ চলবে এক ঘণ্টা করে। এই ভ্রমণ পরিকল্পনায় যুক্ত করার জন্য স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বলে অংশুবাবু জানান। তিনি বলেন, স্থানীয় মানুষজনই এই অভয়ারণ্য রক্ষা করবেন এবং তার পরিবর্তে তাঁরা কিছু লাভও তুলবেন।

এই জলাধারেই তিনটি দ্বীপ আছে – সানসেট আইল্যান্ড, ক্যাটল আইল্যান্ড এবং বার্ডস আইল্যান্ড। প্রতিটি দ্বীপের আলাদা বৈশিষ্ট্য আছে। পর্যটকরা হিরাকুদ জলাধারে নৌভ্রমণ করে ওই তিনটি দ্বীপ দেখারও সুযোগ পাবেন।

আরও পড়ুন: ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যের তকমা পেল ধোলাভিরা

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.