ভোপাল-জব্বলপুর জনশতাব্দীতেও ভিস্টাডোম, কোন কোন ট্রেনে পেতে পারেন এই কোচ   

ভোপাল: এ বার ভিস্টাডোম কোচ এল ভোপাল-জব্বলপুর রেলপথে। এই কোচ যুক্ত করা হয়েছে ভোপাল-জব্বলপুর জনশতাব্দী এক্সপ্রেসে। এই রেলপথে ভিস্টাডোম কোচ আনার ব্যাপারে প্রধান উদ্যোক্তা মধ্যপ্রদেশ পর্যটন। সম্প্রতি রানি কমলাপতি স্টেশনে ভিস্টাডোম ট্রেনযাত্রার সূচনা করেন রাজ্যের মন্ত্রী উষা ঠাকুর ও বিশ্বাস সরং।

ভিস্টাডোম কোচে রয়েছে ৩৬০ ডিগ্রি ঘুর্ণায়মান চেয়ার, বড়ো কাচের জানলা, স্বচ্ছ ছাদ এবং স্বয়ংক্রিয় স্লাইডিং দরজা। রয়েছে ওয়াই-ফাই ও জিপিএস-এর সুবিধা এবং ইনফোটেনমেন্ট সিস্টেম। পর্যটকরা কোচে বসে পাহাড়-জঙ্গল-নদী উপভোগ করছেন।

ভোপাল-জব্বলপুর ট্রেন নিয়ে সারা দেশের বিভিন্ন ট্রেনে ৩৩টি ভিস্টাডোম কোচ চালু রয়েছে। ভারতের প্রথম ভিস্টাডোম ট্রেন চালু হয়েছিল ২০১৭-য় অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনম-আরাকু রুটে। কোন কোন রুটে ভিস্টাডোম ট্রেন চলে মোটামুটি দেখে নেওয়া যাক –

আরাকু ভ্যালি

পর্যটকরা যাতে ট্রেনে বসেই আরাকু ভ্যালির অপূর্ব সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন তার জন্য ভিস্টাডোম কোচ জোড়া হয়েছে বিশাখাপত্তনম-কিরনডুল এক্সপ্রেসে। ভিস্টাডোম কোচ কেটে দেওয়া হয় আরাকু স্টেশনে।

এনজেপি-আলিপুরদুয়ার ট্যুরিস্ট স্পেশালের ভিস্টাডোম কোচে অবজারভেশন রুম থেকে দর্শন। ছবি: শ্রয়ণ সেন।

আলিপুরদুয়ার

ডুয়ার্সের অতুলনীয় সৌন্দর্য-সম্ভার। সবুজ জঙ্গল, চা বাগান  আর অসংখ্য নদী নিয়ে ডুয়ার্স। দূরে হাতছানি দেয় পাহাড়। এই সৌন্দর্য উপভোগ করা যায় এনজেপি-আলিপুরদুয়ার রেলপথে। তাই এই পথেই ভিস্টাডোম কোচ দিয়ে চালানো হচ্ছে এনজেপি-আলিপুরদুয়ার ট্যুরিস্ট স্পেশাল।

শিমলা

কালকা ও শিমলার মধ্যে চলাচলকারী হিম দর্শন এক্সপ্রেসে রয়েছে ভিস্টাডোম কোচ। হাজারেরও বেশি যাত্রী পরিবহন করতে পারে এই ট্রেন। শীতকালে এই কোচে ভ্রমণ করার মজাই আলাদা। কপাল ভালো থাকলে কোচে বসেই তুষারপাত উপভোগ করতে পারেন।

হিম দর্শন এক্সপ্রেস। ছবি সৌজন্যে himalayandiary.com ।

তিনসুকিয়া

অসমের তিনসুকিয়া ও অরুণাচল প্রদেশের নহরলাগুনের মধ্যে চলাচলকারী তিনসুকিয়া-নহরলাগুন এক্সপ্রেসে রয়েছে ভিস্টাডোম কোচ। উপভোগ করুন সবুজ প্রকৃতি আর চা বাগানের সৌন্দর্য।

মাড়গাঁও

যাঁরা মুম্বই হয়ে গোয়া যেতে চান, তাঁরা চলুন দাদার-মাড়গাঁও জনশতাব্দী এক্সপ্রেসে। কারণ এই ট্রেনেই রয়েছে ভিস্টাডোম কোচ। পশ্চিমঘাট পর্বতমালা আর কোঙ্কন উপকূলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে হলে এই ট্রেনের জুড়ি মেলা ভার।

পুনে

মধ্য রেল ২৫ জুলাই থেকে পুনে-মুম্বই-পুনে প্রগতি এক্সপ্রেস আবার চালু করেছে। এই ট্রেনে রয়েছে ভিস্টাডোম কোচ। এই রুটে এটি হল তিন নম্বর ভিস্টাডোম ট্রেন। এই রুটে চলাচলকারী ডেকান এক্সপ্রেস ও ডেকান কুইন এক্সপ্রেসেও রয়েছে ভিস্টাডোম কোচ। ভিস্টাডোম ট্রেনে যেতে যেতে দেখুন সঙ্গির পাহাড়, মাথেরান পাহাড়, উলহাস নদী আর লোনাভালা-খান্ডালা অঞ্চলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য।

মেঙ্গালুরু-বেঙ্গালুরু ভিস্টাডোম। ছবি সৌজন্যে কর্নাটক পর্যটন।

মেঙ্গালুরু

মনোমুগ্ধকর পশ্চিমঘাটের দৃশ্যাবলি দেখার জন্য ভারতীয় রেল ভিস্টাডোম কোচ জুড়েছে মেঙ্গালুরু-বেঙ্গালুরু ট্রেনে। গত বছর থেকে এই ভিস্টাডোম ট্রেন চালু হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন

চলুন ত্রিযুগীনারায়ণ, রাত কাটান জিএমভিএন পর্যটক আবাসে

পর্যটনকে নেতিবাচক চোখে দেখবেন না, সংবাদমাধ্যমের কাছে আর্জি ভ্রমণ সংগঠনগুলির

পূর্ব উপকূলের অল্প-চেনা সৈকত: সূর্যলঙ্কা

 

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.