নানা উৎসব আয়োজন করছে জম্মু-কাশ্মীর, পর্যটক টানতে পরিকল্পনা পর্যটন দফতরের

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক:  পর্যটনকেন্দ্রিক নানা কর্মকাণ্ড চালানোর পরিকল্পনা করেছে জম্মু-কাশ্মীর পর্যটন দফতর। এর মূল উদ্দেশ্য পর্যটক টানা। এই সব কর্মকাণ্ডের মধ্যে বেশিটাই জুড়েই রয়েছে উৎসব। রাজ্যের বিভিন্ন পর্যটনস্থলে সেই জায়গার সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত উৎসব উদযাপন করা হবে। এ ছাড়াও বিভিন্ন অঞ্চলে ট্রেকিং-এর উপরেও জোর দেওয়া হবে।     

চলতি সেপ্টেম্বরে দেশের বিভিন্ন শহরে রোডশোরও আয়োজন করছে জম্মু-কাশ্মীর পর্যটন। বাদ যায়নি কলকাতাও। অতি সম্প্রতি মহানগরের হৃদপিণ্ড ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল এলেকায় রোডশোর আয়োজন করা হয়।

কলকাতায় রোডশো।

রাজ্যের পর্যটন দফতর যে সব পর্যটনকেন্দ্রিক কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে, তা পর্যালোচনা করার জন্য সম্প্রতি রাজ্যের মুখ্যসচিব একে মেহতার নেতৃত্বে একটি বৈঠক হয়। তাতে ঠিক হয়, ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’-এর অঙ্গ হিসাবে অক্টোবরের শেষ দিকে উৎসব-সপ্তাহ পালন করা হবে।

ওই উৎসবে সুফিবাদ নিয়ে সেমিনার, স্থানীয় কলাশিল্প, ক্যালিগ্রাফি ও সুফি ঐতিহ্য নিয়ে প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে। এ ছাড়াও পরিবেশন করা হবে কাওয়ালি, বাউল-সুফি লোকগান, হাজিরি কত্থক, দরবেশ সুফি নৃত্য ইত্যাদি।

অ্যালমন্ড গার্ডেন, শ্রীনগর।

জম্মু-কাশ্মীরের বিভিন্ন পর্যটনস্থলে যে সব উৎসব অনুষ্ঠিত হয় সে সব উৎসবকে পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষণীয় করার জন্য সব রকম ব্যবস্থা করছে পর্যটন দফতর। এই উৎসবের মধ্যে রয়েছে পহলগাম উইন্টার ফেস্টিভ্যাল, সোনামার্গ অটাম ফেস্টিভ্যাল, গুলমার্গ স্নো ফেস্টিভ্যাল, খাদিনিয়ার কালচার ফেস্টিভ্যাল, বাশোলি আর্ট ফেস্টিভ্যাল, মাতা বৈষ্ণোদেবী সংগীত সম্মেলন, কিশ্তোয়ার স্যাফ্রন প্লাকিং ফেস্টিভ্যাল ইত্যাদি।

এ ছাড়াও পর্যটনের প্রসার ঘটাতে হাউসবোট ফেস্টিভ্যাল, উইন্টার কার্নিভালেরও আয়োজন করা হবে।

সূত্র: খবরঅনলাইন

আরও পড়তে পারেন

দিল্লি বিধানসভা থেকে লালকেল্লা সুড়ঙ্গপথের খোঁজ, বছরখানেকের মধ্যেই খুলে দেওয়া হবে দেখার জন্য

লিঙ্গরাজ মন্দিরের দরজা খুলে গেল ১ সেপ্টেম্বর থেকে

খুলে গেল মেঘালয়ের দরজা, চলুন শিলং, চেরাপুঞ্জি বা মওলিননং

যে কোনো সময়েই যাওয়া যায় মহারাষ্ট্রে অষ্টবিনায়ক যাত্রায়, দেখে নিন কী ভাবে ঘুরবেন

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.