খুলে গেল মেঘালয়ের দরজা, চলুন শিলং, চেরাপুঞ্জি বা মওলিননং

নিজস্ব প্রতিনিধি, গুয়াহাটি: শিলং, চেরাপুঞ্জি বা মওলিননং – এই করোনা-আবহে কোনো জায়গায় আর অধরা রইল না পর্যটকদের কাছে। বুধবার ১ সেপ্টেম্বর থেকে পর্যটকদের কাছে মেঘালয়ের দরজা খুলে দেওয়া হয়েছে। শর্ত শুধু একটাই – হয় কোভিড টিকার ২টি ডোজের সার্টিফিকেট অথবা আরটি-পিসিআর নেগেটিভ রিপোর্ট।

পর্যটকদের স্বর্গরাজ্য মেঘালয়ে পর্যটন ব্যবসা প্রচণ্ড মার খাচ্ছিল করোনা পরিস্থিতির জন্য। শেষ পর্যন্ত কোভিড সংক্রমণের হার অনেকটাই কমে যাওয়ায় রাজ্যে পর্যটকদের আবার আমন্ত্রণ জানানোর সিদ্ধান্ত নিল মেঘালয় সরকার। গত বৃহস্পতিবার মেঘালয় সরকারের মন্ত্রিগোষ্ঠীর বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বৈঠকের শেষে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাড সাংমা জানান, ১ সেপ্টেম্বর মেঘালয় স্কুল কলেজ এবং পর্যটনস্থল খুলে দেওয়া হচ্ছে। করোনা ভ্যাকসিনের ২টি ডোজ নেওয়া থাকলে পর্যটকের মেঘালয় প্রবেশে অসুবিধা হবে না। নচেৎ আরটি-পিসিআর টেস্ট করিয়ে রাজ্যে ঢুকতে হবে।

ক্রাং শুরি ফলস, জয়ন্তিয়া পাহাড়।

মেঘালয়ে বেড়াতে এলে পর্যটকদের কী শর্ত মানতে হবে তা টুইট করেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনটি শর্তের কথা তিনি বলেছেন-

(১) রাজ্যের বাইরে থেকে আসা যে সব পর্যটকের কোভিড টিকার দু’টি ডোজ নেওয়া হয়ে গিয়েছে তাঁরা অবাধে মেঘালয়ে প্রবেশ করতে পারবেন।

(২)  কোভিড টিকার একটি ডোজ নেওয়া থাকলে বা টিকা একদমই না নেওয়া থাকলে সেই পর্যটককে রাজ্যের এন্ট্রি পয়েন্টে আরটি-পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ রিপোর্ট দেখাতে হবে এবং সেই রিপোর্ট ৭২ ঘণ্টার বেশি পুরোনো হলে চলবে না।

(৩) রাজ্যের ভিতরের পর্যটকদের যদি কোভিড টিকার একটি ডোজও নেওয়া থাকে তা হলেই তাঁরা রাজ্যের যে কোনো জায়গায় যেতে পারবেন।   

আরও পড়তে পারেন       

দার্জিলিং-এর টয় ট্রেনে চেপে চলুন জঙ্গল টি সাফারিতে

টিকার পুরো ডোজ নেওয়া থাকলে ভ্রমণে আরটি-পিসিআর রিপোর্ট নয়, কেন্দ্রীয় পর্যটন মন্ত্রকের চিঠি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.