স্পেনে বিদেশি পর্যটকরা ১ জুলাই থেকে স্বাগত

  • by

ভ্রমণ অনলাইন ডেস্ক: ১ জুলাই থেকে আন্তর্জাতিক পর্যটকদের (international tourists) জন্য দরজা খুলে দেবে স্পেন (Spain)। সে দেশের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সাঞ্চেজ (Pedro Sanchez) জানিয়েছেন, তাঁরা জুলাইয়ের প্রথম দিন থেকে বিদেশি পর্যটকদের স্বাগত জানাতে শুরু করবেন। এও খবর পাওয়া গিয়েছে, বিদেশি পর্যটকদের ক্ষেত্রে ১৪ দিন কোয়ান্টারাইন থাকার যে বিধি স্পেনে রয়েছে, তা-ও তুলে নেবে স্প্যানিশ সরকার।

প্রধানমন্ত্রী তাঁর ঘোষণায় বলেছেন, “আপনারা সবাই জানেন, স্পেনে বছরে ৮ কোটিরও বেশি পর্যটক আসেন। আমি ঘোষণা করছি, সুরক্ষা দেওয়ার শর্তে জুলাই থেকে স্পেন বিদেশি পর্যটকদের জন্য দরজা আবার খুলে দেবে।

তিনি আরও বলেন, পর্যটন দরকার স্পেনের আর পর্যটনের দরকার সুরক্ষা, যেখান থেকে পর্যটন শুরু হবে এবং যেখানে গন্তব্য, দু’ জায়গাতেই। পর্যটকরা এ দেশে এসে যাতে সুরক্ষিত থাকেন এবং তাঁরা যাতে এ দেশে কোনো বিপদ না ডেকে আনেন, দু’টো ব্যাপারই সুনিশ্চিত করবে স্প্যানিশ সরকার।”

স্পেনের বিদেশমন্ত্রী আরাঞ্চা গোঞ্জালেজ (Arancha Gonzalez) টুইটারে বলেন, “খারাপ সময় পিছনে ফেলে এসেছি। জুলাইয়ে আন্তর্জাতিক পর্যটকদের কাছে স্পেনকে ধীরে ধীরে খুলে দেব, কোয়ান্টারাইন তুলে দেব এবং উচ্চতম মানের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সুনিশ্চিত করব।”

https://twitter.com/AranchaGlezLaya/status/1264901332928024576

দেশের অর্থনীতির হাল ফেরাতে অভ্যন্তরীণ ছুটিছাটার পরিকল্পনা কী ভাবে করা যায় সে সম্পর্কে দেশবাসীকে চিন্তাভাবনা করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। উল্লেখ্য, কোভিড ১৯ (Covid 19) অতিমারির জন্য দু’ মাস লকডাউনে (lockdown) ছিল স্পেন। ইতিমধ্যে ৮ জুন থেকে স্পেনে ফুটবল লিগ লা লিগা শুরু করার কথা ঘোষণা করেছে সে দেশের সরকার। এর ফলে সাধারণ দেশবাসী মনের জোর কিছুটা ফিরে পাবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

গত কয়েক দিন ধরেই স্পেনের বামপন্থী প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সাঞ্চেজের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চলছে। প্রতিবাদকারীদের অভিযোগ, কোভিড ১৯ অতিমারি রুখতে বড়ো বেশি কড়া পথ নিয়েছেন সাঞ্চেজ। ফলে দেশে বেকারি বেড়েছে, বেড়েছে দুর্দশা। ২৩ মে বার্সেলোনা ও মাদ্রিদ শহরে দু’টি বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। বিক্ষোভকারীরা স্পেনের পতাকা দিয়ে সমস্ত যানবাহন মুড়ে দিয়েছিল। তাঁদের মুখে ছিল সরকারবিরোধী স্লোগান। এই প্রতিবাদের পরিপ্রেক্ষিতেই প্রধানমন্ত্রী নানা ঘোষণা করেছেন যার মধ্যে অন্যতম হল বিদেশি পর্যটকদের আবার ফিরিয়ে আনা।      

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।