করোনায় বিপর্যস্ত পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতে বাজেটে ১০ কোটি বরাদ্দ করল পশ্চিমবঙ্গ

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: গত এক বছরে সারা দেশের পর্যটন শিল্প ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর একমাত্র কারণ করোনা অতিমারি। এর ভয়াবহ প্রভাব থেকে বাদ পড়েনি পশ্চিমবঙ্গও। তাই এই শিল্পকে চাঙ্গা করতে উদ্যোগী হলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার রাজ্য বিধানসভায় পেশ করা বাজেট প্রস্তাবে তিনি পর্যটনের জন্য ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন।      

মুখ্যমন্ত্রীর লক্ষ্য, এক দিকে পর্যটনকেন্দ্রগুলিকে ঢেলে সাজা অন্য দিকে এর মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা এবং যাঁরা এই শিল্পের সঙ্গে যুক্ত তাঁদের সমৃদ্ধ করা। মুখ্যমন্ত্রী তাঁর বাজেট বরাদ্দেই বিষয়টি স্পষ্ট করে দিয়েছেন।  

শুক্রবার রাজ্য বাজেট পেশ করার সময়ে পর্যটন সহায়তা প্রকল্পের ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এই প্রকল্পের আওতায় আসবে রিসর্ট, হোটেল, হোমস্টে, ভ্রমণ সহায়ক সংস্থাগুলি। ৫০ হাজার থেকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ব্যাঙ্ক ঋণ পাওযার সুবিধা দেওয়ার কথাও এ দিন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রথম বছরে সুদের ৫০ শতাংশ বহন করবে রাজ্য।

বাজেট ভাষণে তিনি বলেন, “কোভিড-১৯ অতিমারিতে ভ্রমণ ও পর্যটন শিল্প বিশেষ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিভিন্ন সংস্থা ও বহু মানুষ এই শিল্পের সঙ্গে যুক্ত। এই সব সংস্থার পাশে দাঁড়ানোর জন্য রাজ্য সরকার একটি পর্যটন সহায়ক প্রকল্প শুরু করেছে।”

এ ছাড়াও আগামী পাঁচ বছরের জন্য একটি নতুন ইনসেনটিভ স্কিমের কথাও ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বেশ কয়েক বছর ধরেই পর্যটনে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে রাজ্য সরকার। পর্যটন মেলাও চলছে বেশ কয়েক বছর ধরে। গত কয়েক বছরে রাজ্যের পর্যটন শিল্পে বেশ উন্নতিও হয়েছে। যদিও অতিমারির কারণে ২০২০-এর মার্চ থেকে জুন পর্যন্ত পর্যটন পুরোপুরি বন্ধ থাকায় ব্যাপক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন এই শিল্পের সঙ্গে যুক্ত মানুষজন। তাঁদের আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে এবং সামগ্রিক ভাবে পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতে এগিয়ে এলেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: কেরলের আলপ্পুঝায় তৈরি হচ্ছে শ্রমিক আন্দোলন সংক্রান্ত ভারতের প্রথম মিউজিয়াম

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.