খুলে গেল বেলুড় মঠ, তবে মানতে হবে কিছু বিধিনিষেধ

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: বুধবার দর্শনার্থীদের জন্য খুলে গেল বেলুড় মঠের দরজা। ছ’ মাসেরও বেশি সময় ধরে টানা বন্ধ ছিল বেলুড় মঠ। তবে দর্শনার্থীরা মঠে প্রবেশের অনুমতি পেলেও তাঁদের মানতে হবে নানা বিধিনিষেধ। মঠ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আগামী কয়েক দিন পরিস্থিতি কেমন থাকে দেখে ধীরে ধীরে বিধিনিষেধ শিথিল করা হতে পারে।

আপাতত সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ১১টা এবং বিকেল সাড়ে ৩টে থেকে সোয়া ৫টা পর্যন্ত জনসাধারণকে মঠে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে। দর্শনার্থীরা শ্রীরামকৃষ্ণ মন্দির, শ্রীমা সারদা মন্দির, স্বামী বিবেকানন্দ মন্দির ও ব্রহ্মানন্দ মন্দিরে ঢুকতে পারবেন। তবে দর্শন করেই বেরিয়ে আসতে হবে, ভিতরে বসা যাবে না। কোনো সন্ন্যাসীকে পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করা যাবে না। প্রসাদ বিতরণ আপাতত বন্ধ থাকবে। মঠের ঘাট দিয়ে গঙ্গায় নামা যাবে না।

কোভিড পরিস্থিতিতে গত ২৫ মার্চ বেলুড় মঠ বন্ধ করে দেওয়া হয়। ১৫ জুন মঠ খোলে। কিন্তু ৮০ জনেরও বেশি সন্ন্যাসী কোভিড ১৯-এ আকান্ত হওয়ায় ১ আগস্ট থেকে মঠ আবার বন্ধ করে দেওয়া হয়। কোভিড পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় ১৯২ দিন পর আবার মঠ খুলে দেওয়া হল সাধারণের জন্য।

তবে মঠ খুলে গেলেও আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি সরস্বতীপুজো, ১৫ মার্চ শ্রীরামকৃষ্ণের জন্মতিথি এবং সেই উপলক্ষ্যে ২১ মার্চ সাধারণ উৎসবের দিন মঠে সাধারণের প্রবেশ বন্ধ থাকবে। এ কথা জানিয়ে রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ বলেন, “ওই দিনগুলিতে অনেক বেশি মানুষ আসেন। সেই ভিড় নিয়ন্ত্রণ করতেই প্রবেশ বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এর জন্য ভক্ত ও দর্শনার্থীদের কাছে মার্জনা চাইছি। আশা করছি, পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হবে।”  

ছবি: সৌজন্যে রামকৃষ্ণ মঠ ও রামকৃষ্ণ মিশন, বেলুড় মঠ টুইটার থেকে নেওয়া।   

আরও পড়ুন: করোনায় বিপর্যস্ত পর্যটন শিল্পকে চাঙ্গা করতে বাজেটে ১০ কোটি বরাদ্দ করল পশ্চিমবঙ্গ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.