উড়ানে আর খাবার দেবে না এই ভারতীয় বিমান সংস্থা

ভ্রমণ অনলাইন ডেস্ক: দেশ জুড়ে লকডাউনের জেরে যাত্রীবিমান পরিষেবা সম্পূর্ণ স্তব্ধ। কিন্তু নিয়ন্ত্রিত ভাবে পরিষেবা চালু করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। লকডাউন উঠে গেলেই তা কার্যকর করা হবে। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ঘোষণা অনুযায়ী দেশে লকডাউনের মেয়াদ ৩ মে পর্যন্ত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

পরিকল্পনা ছকার ব্যাপারে অন্য সব বিমানসংস্থার থেকে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে দেশের সব চেয়ে জনপ্রিয় বিমানসংস্থা ইন্ডিগো। উড়ান চালু হলে বিমানের অভ্যন্তরে এবং বিমানবন্দরে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা তো হবেই, উপরন্তু খরচা কমানোরও কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন: লকডাউনের জের: হরিদ্বার ও হৃষীকেশে গঙ্গার জল এখন পানের যোগ্য

ইন্ডিগো বিমানসংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, তাদের পরিচালন কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত করেছে, বিমানবন্দরের বাস ৫০ শতাংশ ভরতি করা হবে এবং উড়ানে খাবার দেওয়াও বন্ধ করে দেওয়া হবে। তা ছাড়া, বিমানগুলিকে একেবারে নিখুঁত ভাবে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা হবে।

যাত্রীদের জ্বর আছে কি না তা সিকিউরিটি চেকের সময় পরীক্ষা করে নেওয়া হবে। যাত্রীর জ্বর থাকলে বিমানবন্দরে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

ইন্ডিগোর সিইও রণজয় দত্ত এক বিবৃতিতে বলেছেন, সুরক্ষার বিষয়টি তাঁর কোম্পানি যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে ভাবে। আর এই বিশ্ব মহামারির সময়ে তারা স্বাস্থ্য নিয়ে যথেষ্ট সচেতন। এ ব্যাপারে কিছু নতুন বিধি শীঘ্রই জারি করবে তাঁর কোম্পানি।

এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন (এটিএ) সূত্রে জানা গিয়েছে, বিমান পরিবহণ বন্ধ থাকার ফলে যাত্রীদের চাহিদা প্রচণ্ড কমে গিয়েছে। ফলে ২৫০ লক্ষ কর্মীর চাকরি এখন বিপন্ন।

Leave a Reply