খুলছে জম্মু-কাশ্মীরের সব তীর্থস্থান, খুলছে বৈষ্ণো দেবীও

  • by

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: এই আগস্টেই জম্মু-কাশ্মীরের সব তীর্থস্থান পর্যটক তথা তীর্থযাত্রীদের জন্য খুলে দেওয়া হচ্ছে। স্বাধীনতা দিবসের পর দিনই অর্থাৎ ১৬ আগস্ট থেকে খুলে যাচ্ছে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের  সব ধর্মীয় স্থান। জম্মু-কাশ্মীরের প্রশাসন এই সিদ্ধান্ত করেছে।

জম্মু অঞ্চলের রিয়াসি জেলায় বৈষ্ণো দেবী মন্দিরও ওই দিনই খুলে যাচ্ছে।

করোনাভাইরাস অতিমারির জেরে গত ১৮ মে থেকে সব তীর্থস্থান বন্ধ করে দিয়েছিল জম্মু-কাশ্মীরের প্রশাসন। একই সঙ্গে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল বৈষ্ণো দেবী যাত্রাও।

কেন্দ্র অবশ্য ৮ জুন থেকে দেশের সব তীর্থস্থান খোলার অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু কোভিড সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ওই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়নি।

আরও পড়ুন: খুলে গেল ভ্যালি অফ ফ্লাওয়ার্স, যেতে পারবেন বাইরের পর্যটকরাও

এর উল্লেখ করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি এবং সরকারের মুখপাত্র টুইট জোরে বলেছেন, “জম্মু-কাশ্মীর সরকারের বড়ো সিদ্ধান্ত। ২০২০-এর ১৬ আগস্ট থেকে জম্মু-কাশ্মীরে সমস্ত ধর্মীয় স্থান ও পুজোর স্থল খুলে যাচ্ছে। তবে ধর্মীয় মিছিল ও বড়ো ধর্মীয় সমাবেশ নিষিদ্ধই থাকছে।”

বৈষ্ণো দেবী তীর্থ বোর্ডের এক সিনিয়ার আধিকারিক বলেন, সরকার সব ধর্মীয় স্থান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত করায় বৈষ্ণো দেবী মন্দিরও খুলছে। তবে মন্দির খোলার আগে কোভিড ১৯-এর জন্য যে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর (এসওপি) তা পুরোপুরি মানা হবে। আর বৈষ্ণো দেবী যাত্রা যাতে সমস্ত সতর্কতা অবলম্বন করে করা হয় তার জন্য তীর্থ বোর্ডের নিজস্ব এসওপি ঘোষণা করা হবে শীঘ্রই।

ওই অফিসার জানান, বৈষ্ণো দেবী দেবালয়ে, দেবালয়ে আসা-যাওয়ার দু’টি পথে এবং কাটরা শহরে ব্যাপক ভাবে স্যানিটাইজেশন অভিযান চলছে। শারীরিক দূরত্ববিধি যাতে ঠিক ভাবে মানা হয় তার জন্য যাত্রা পর্চি কাউন্টার, ভবন এবং কাটরা ও সঞ্জি ছাটে যাত্রীদের দাঁড়ানোর জন্য বৃত্তাকার জায়গা চিহ্নিত করে দেওয়া হচ্ছে। জানা গিয়েছে, প্রথমে স্থানীয় তীর্থযাত্রীদেরই মন্দিরে যেতে দেওয়া হবে।            

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।