বান্ধবগড় জাতীয় উদ্যানে আগুন, বড়ো বিপর্যয়ের আশঙ্কা

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: আগুন লেগেছে মধ্যপ্রদেশের বান্ধবগড় জাতীয় উদ্যানে। সেই আগুন ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ছে। এর ফলে বান্ধবগড়ের বন্যসম্পদ বড়ো বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছে।

স্থানীয় মানুষদের অভিযোগ, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে এখনও বিশেষ কিছু করা হয়নি। সোমবার জঙ্গলের কিছু বিচ্ছিন্ন জায়গায় আগুন লাগে। এখন সেই জঙ্গলের ছ’টি রেঞ্জে ছড়িয়ে পড়েছে আগুন।

ভারতের অন্যতম বৃহত্তম জীবমণ্ডল বান্ধবগড়। এই জঙ্গলে আগুন লাগার পরিণাম জীববৈচিত্র্যের ব্যাপক ক্ষতি। বিন্ধ্য পাহাড় অঞ্চলে ১০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে বান্ধবগড় জাতীয় উদ্যানের অবস্থান। বাঘ এই জাতীয় উদ্যানের বড়ো সম্পদ। এই জঙ্গলের প্রতি বর্গকিমি এলাকায় ৭-৮টি করে বাঘ আছে বলে শোনা যায়। জঙ্গলে আগুন লাগলে এই ব্যাঘ্রসম্পদের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

বন্যপ্রাণ নিয়ে যারা উৎসাহী, তাদের কাছে বান্ধবগড় অত্যন্ত প্রিয় গন্তব্য। ১৯৬৮ সালে এটি জাতীয় উদ্যান হিসাবে ঘোষিত হয়। এবং ১৯৯৩ সালে এটিকে সংরক্ষিত অঞ্চল ঘোষণা করা হয়।

হোলির ছুটিতে জঙ্গলে পর্যটক সমাগম থেকেই আগুন লেগেছে বলে প্রাথমিক বলে মনে করা হচ্ছে। জঙ্গল জুড়ে বাঁশঝাড় থাকার দরুন এবং চলতি তাপপ্রবাহ পরিস্থিতির জন্য আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।

ফিল্ড ডিরেক্টর ভিনসেন্ট রহিম বলেন, “বেশ কিছু জায়গায় কী ভাবে আগুন লাগল, সেটা ভেবে আমরাও বিস্মিত। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য সব রকম চেষ্টা চালানো হচ্ছে।”

যতটুকু খবর পাওয়া গিয়েছে তা থেকে জানা যায়, আগুনের প্রভাব পড়েছে পনপথা, টালা, খিটোলি এবং মানপুর এলাকায়। বিপন্ন প্রজাতির প্রাণী-সহ কিছু বন্যপ্রাণী যে আগুনের কবলে পড়েছে তা কর্তৃপক্ষের নজরে এসেছে। ফলে দেখে মনে হচ্ছে, একটা বড়ো বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে বান্ধবগড়।

ছবি সৌজন্যে ‘Tigers4Ever’-এর টুইটার

আরও পড়ুন: বেশি সংক্রমণের রাজ্য থেকে পর্যটক উত্তরাখণ্ডে এলে কোভিড ১৯ নেগেটিভ রিপোর্ট লাগতে পারে

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.