বাঘ গণনায় গিনিস বুকে নাম তুলল ভারত

ভ্রমণ অনলাইন ডেস্ক : বাঘ গণনায় গিনিস বুক অফ ওর্য়াল্ড রের্কডস-এ নাম তুলে ফেলল ভারত। বিশ্বের বৃহত্তম এই গণনার সময় সব চেয়ে বেশি সংখ্যক বাঘকে ক্যামেরাবন্দি করার জন্য এই রেকর্ড।

গণনা অনুযায়ী ভারতে বাঘের সংখ্যা ২৯৬৭, যা পৃথিবীর মোট বাঘের সংখ্যার ৭৫ শতাংশ। এর মধ্যে ২৪৬১টি ‘বিগ ক্যাট’-এর ছবি তোলা সম্ভব হয়েছে। চতুর্থ দফার এই গণনা করা হয়েছে ২০১৮-১৯ সালে।

এই গণনাকে স্বীকৃতি জানিয়ে গিনিস রেকর্ডস বলেছে, তথ্য এবং সম্পদের নিরিখে এই গণনা সর্বাধিক বিস্তৃত।

টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে এর প্রতিক্রিয়ায় পরিবেশমন্ত্রী জানিয়েছেন, লক্ষ্য ছিল ২০২২ সালের মধ্যে গণনার কাজ শেষ করা। তার অনেক আগে এটি শেষ করা গিয়েছে। বাঘের গতিবিধির উপর নজরদারির জন্য প্রচুর ক্যামেরা লাগানো হয়েছিল, যা বিশ্বে এই প্রথম। আর সে কারণেই গিনিস বুক অফ ওর্য়াল্ড রেকর্ডস-এর স্বীকৃতি মিলেছে বলে তিনি জানিয়েছেন। পরিবেশমন্ত্রী আরও বলেন, বিশ্বের বাঘ জনসংখ্যার ৭০ শতাংশের বাড়ি হল আমাদের ভারত।

কবে থেকে শুরু হয়েছে এই গণনা?

২০০৬ সাল থেকে ভারত সরকার এই বাঘ গণনার কাজ করছে। ভারতের বন্যপ্রাণী ইনস্টিটিউট এবং ন্যাশানল টাইগার কনসার্ভেশন অথিরিটি এই সমীক্ষা চালাচ্ছে। এই গণনার কাজে যুক্ত করে নেওয়া হয়েছে পরিবেশ সংরক্ষণের কাজে যুক্ত এনজিও এবং বনবিভাগকে।

বেড়েছে বাঘের সংখ্যা

বাঘ সংরক্ষণে বিশ্বমানকে ছুঁয়েছে ভারত। এর ফলে বাঘের সংখ্যা এক তৃতীয়াংশ বেড়েছে। ২০১৪ সালে ভারতে বাঘ ছিল ২২২৬ সেখানে ২০১৮ সালে বেড়ে হয়েছে ২৯২৭। চোরাশিকারে লাগাম টানা এবং বাঘ চলাচলের জন্য করিডোর তৈরি, বাঘ বাড়ার কারণগুলির মধ্যে অন্যতম।

বাঘপ্রেমীরা তাদের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন টুইটারে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *