ashtabhuja temple

নভেম্বরেই চালু হতে চলেছে বিন্ধ্যাচলের কালী খোহ থেকে অষ্টভূজা পর্যন্ত রোপওয়ে

ভ্রমণঅনলাইনডেস্ক: অবশেষে মির্জাপুর জেলার বিন্ধ্যাচলে পবিত্র ত্রিকোণের কালী খোহ এবং অষ্টভূজা পর্বতে যাওয়ার জন্য তীর্থযাত্রীদের জন্যে আসছে আকর্ষণীয় ব্যবস্থা। তাঁরা এ বার রজ্জুপথে যেতে পারবেন এই স্থানগুলিতে। নভেম্বর থেকে চালু হতে চলেছে এই রজ্জুপথ বা রোপওয়ে।

বিন্ধ্যাচল রোপওয়ে হল পূর্ব উত্তরপ্রদেশে এ ধরনের প্রথম  উদ্যোগ। দু’টি পর্যায়ে এই রোপওয়ে  চালু করা হবে। কালীখোহ থেকে অষ্টভূজা পর্যন্ত প্রথম রোপওয়ে লাইন  নির্মাণের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। অষ্টভূজা থেকে গাড়ি পার্কিং-এর অঞ্চল পর্যন্ত দ্বিতীয় রোপওয়ে লাইনটির নির্মাণ ডিসেম্বরের শেষে সম্পূর্ণ হয়ে যাবে বলে আশা করা যায়।

kali khoh temple
কালী খোহ মন্দির।

উত্তরপ্রদেশ পর্যটনের যুগ্ম অধিকর্তা (বারাণসী) অবিনাশ মিশ্র জানিয়েছেন, কালীখোহ থেকে অষ্টভূজা পর্যন্ত রোপওয়ের কাজ প্রায় শেষ। নভেম্বরেই তা পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

অবিনাশবাবু আরও জানিয়েছেন, এটি পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত। এটি তৈরি করতে ১৩ কোটি খরচ হচ্ছে। এই রোপওয়ের ফলে এই যাত্রাপথ তীর্থযাত্রীদের জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে। আবার যারা পিকনিক করতে পছন্দ করেন তাঁদের কাছেও আকর্ষণীয় স্থান হয়ে উঠবে এটি। প্রতিদিনই তীর্থযাত্রী এবং পিকনিক দল মিলিয়ে প্রায় ২০০০ পর্যটক এখানে আসেন।

আরও পড়ুন ডিসেম্বরের ১ তারিখে নাগাল্যান্ডে শুরু হচ্ছে হর্নবিল উৎসব

তিনি আরও জানিয়েছেন, যে শুধু সময় বাঁচানোর জন্যই নয়, এক পাহাড় থেকে আরেক পাহাড়ে রজ্জুপথে যাওয়ার সময় পথের নয়নাভিরাম সৌন্দর্য দেখে মন মুগ্ধ হতে বাধ্য। পর্যটকরা ২৬০ মিটার উঁচু থেকে প্রকৃতি দর্শন করবেন।  

কালীখোহ ও অষ্টভূজা এই দু’টি পাহাড় পবিত্র বিন্ধ্যাচল ত্রিকোণের অন্তর্গত। তীর্থযাত্রীরা প্রায় ৬-৮ কিলোমিটার হেঁটে এই যাত্রা শেষ করেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *