অমরনাথ যাত্রা হল না, তুষারলিঙ্গও ৮০ শতাংশ গলে গেল

  • by

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: এ বছর কাশ্মীর অঞ্চলে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি গরম পড়ায় অমরনাথের শিবলিঙ্গ অনেকটাই গলে গিয়েছে বলে শ্রীনগরে পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের জেরে এ বছর অমরনাথ যাত্রা বাতিল করে দেওয়া সংক্রান্ত সরকারি ঘোষণার পরেই প্রাকৃতিক ভাবে গড়ে ওঠা শিবলিঙ্গ গলে যাওয়ার খবর আসে। জানা গিয়েছে, তুষারলিঙ্গের ৮০ শতাংশ গলে গিয়েছে। বার্ষিক বিশ্রামের পর জুন মাসের মাঝামাঝি যখন তীর্থস্থল খুলেছিল তখন তুষারলিঙ্গ পুরোটাই তৈরি হয়েছিল।

রোজকার যে খবর পাওয়া যায়, তা থেকে জানা যায় জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে তুষারলিঙ্গের ৫০ শতাংশ গলে গিয়েছিল। এর পর প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ১৮ জুলাই যখন অমরনাথ তীর্থস্থলে যান, তখন দেখা যায় তুষারলিঙ্গের ৮০ শতাংশই গলে গিয়েছে।

১৩ হাজার ফুট উচ্চতায় অবস্থিত অমরনাথ তীর্থস্থল দক্ষিণ কাশ্মীরে পহলগাম থেকে ৪৬ কিমি এবং বালতাল থেকে ১৪ কিমি দূরে।

কোভিড ১৯ মহামারির জন্য এ বছর অমরনাথ যাত্রা হবে কিনা সে ব্যাপারে শ্রী অমরনাথ শ্রাইন বোর্ডকে (এসএএসবি) দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে বলেছিল জম্মু ও কাশ্মীর হাইকোর্ট। শেষ পর্যন্ত বোর্ড এ বছরের মতো অমরনাথ যাত্রা বাতিল করে।

আরও পড়ুন: ‘যোগ নগরী’ হৃষীকেশ স্টেশনের ভোল বদল, ছবি শেয়ার করলেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল

অমরনাথ গুহামন্দিরের মোহান্ত দীপেন্দ্র গিরি বোর্ডের এই সিদ্ধান্তে সমর্থন জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, অমরনাথে ভগবান শিবের পবিত্র ত্রিশূলদণ্ডটি দেখভালের দায়িত্ব এই মোহান্তের। লাল চকে আখাড়া ভবন থেকে গুহামন্দিরে ত্রিশূল পৌঁছে দেওয়া এবং যাত্রা শেষে সেই ত্রিশূল ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব তাঁর।

এর আগেও সরকার অমরনাথ যাত্রা বাতিল করেছেন। তবে যাত্রা শুরু হওয়ার আগেই বাতিল হয়ে যাওয়ার নজির দীর্ঘ কয়েক দশকে নেই। এক ভিডিও বার্তায় দীপেন্দ্র গিরি বলেছে, বর্তমান পরিস্থিতিতে যাত্রা বাতিলের সিদ্ধান্ত সঠিক।

‘এটাই ঈশ্বরের ইচ্ছা’, এ কথা বলে গিরি বলেছেন, সকালের আরতি ও সন্ধ্যারতি টিভিতে সম্প্রচার করার যে সিদ্ধান্ত হয়েছে, তাতে ভক্তদের উপকার হবে।

Leave a Reply