১ জানুয়ারি কল্পতরু উৎসবে দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ থাকবে কাশীপুর উদ্যানবাটী, দক্ষিণেশ্বর মন্দির

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: এ বার কল্পতরু উৎসবের দিন কাশীপুর উদ্যানবাটী ও দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে দর্শনার্থীদের প্রবেশ বন্ধ থাকবে। করোনা পরিস্থিতিতে ওই দিন দূরত্ববিধি মেনে চলা অসম্ভব মনে করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন উদ্যানবাটী ও দক্ষিণেশ্বর মন্দির কর্তৃপক্ষ। ওই দিন বাগবাজারে মায়ের বাড়িতেও দর্শনার্থীদের প্রবেশ বন্ধ থাকবে।

পয়লা জানুয়ারি ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণের কল্পতরু উৎসব। ওই দিন লক্ষ লক্ষ ভক্তের সমাগম হয় কাশীপুর উদ্যানবাটী ও দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে। ভোর থেকে শুরু হয় ভক্ত সমাগম। প্রবেশের জন্য দীর্ঘ লাইন পড়ে যায় উদ্যানবাটী ও দক্ষিণেশ্বর মন্দির সংলগ্ন রাস্তায়।  

উদ্যানবাটীতে প্রায় ৫০ হাজার ভক্তকে প্রসাদ দেওয়া হয়। মঞ্চ বেঁধে হয় সাংস্কৃতিক ও ভক্তিমূলক অনুষ্ঠান। কিন্তু এ বছর করোনা পরিস্থিতির কারণে ১ জানুয়ারি কল্পতরু উৎসবের দিন থেকে ৩ জানুয়ারি রবিবার পর্যন্ত উদ্যানবাটীতে সাধারণের প্রবেশ বন্ধ থাকবে।

এখন প্রতি দিন সকাল ৯টা থেকে ১১টা এবং দুপুর সাড়ে ৩টে  থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত কাশীপুর উদ্যানবাটী খোলা থাকে।

রামকৃষ্ণ মঠ কাশীপুর উদ্যানবাটীর তরফে স্বামী পরেশাত্মানন্দ জানিয়েছেন, কল্পতরু উৎসবের দিন প্রথা মেনেই ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ ও মা সারদার ঘরে পুজো হবে। তা ছাড়া সকাল থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত শ্রীরামকৃষ্ণদেবের ঘরের নীচে মন্দিরে ভক্তিগীতি ও পাঠ পরিবেশন হবে। ওই অনুষ্ঠান এবং পুজো, সবই সরাসরি রামকৃষ্ণ মঠ কাশীপুর উদ্যানবাটীর  নিজস্ব ওয়েবসাইট www.rkmcudyanbati.org  এবং ইউটিউব চ্যানেল rkmc Udyanbati-তে দেখা যাবে।

দক্ষিণেশ্বর মন্দির।

অন্য দিকে, শারীরিক দূরত্ববিধি মেনে ভিড় সামাল দেওয়া মুশকিল মনে করেই কল্পতরু উৎসবের দিন দক্ষিণেশ্বর মন্দির বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। প্রতি বছর কল্পতরু উৎসবের দিন কয়েক লক্ষ দর্শনার্থী আসেন দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে। ভিড় সামলাতে ভোর ৪টে থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মন্দির খুলে রাখতে হয়। পঞ্চবটীকে কেন্দ্র করে বসে মেলা। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে কোনোই জন সমাগমের ঝুঁকি নিতে রাজি নয় মন্দির কর্তৃপক্ষ।

মন্দির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মন্দিরে প্রবেশ বন্ধ থাকলেও ভবতারিণী মন্দির ও ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণের ঘরে বিশেষ পূজা ও হোম হবে। সিংহদুয়ার দিনভর বন্ধ থাকবে ।

দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের অছি ও সম্পাদক কুশল চৌধুরী বলেন, “অগণিত ভক্ত সমাগমে দূরত্ববিধি বজায় রাখা অসম্ভব। তাই কল্পতরু উৎসবে মন্দির বন্ধ রাখতে বাধ্য হওয়ায় আমরা দুঃখিত।”

আরও পড়ুন: ২৫ ডিসেম্বর থেকে ফের চালু হচ্ছে টয় ট্রেন, আপাতত দার্জিলিং-ঘুম জয়রাইড

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.