পরামর্শ বিশ্ব

নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন? এমন জিনিস সঙ্গে নেবেন না যাতে আপনার জরিমানা হয়

ভ্রমণঅনলাইনডেস্ক: আপনি কি নিউজিল্যান্ড যাচ্ছেন? তা হলে নিশ্চয়ই আপনার কাছে এমন জিনিস থাকতে পারে যা ‘বিশেষ’। যেমন ধরুন, মিষ্টি-সহ নানা রকম খাবার বা নানা রকম সাংস্কৃতিক পণ্য। খেয়াল রাখবেন, কোনো জিনিসের জন্য যেন আপনার জরিমানা না হয়।

কী কী জিনিস নিষিদ্ধ

কিছু জিনিস যা আপনি একেবারেই নিয়ে যেতে পারবেন না –

টাটকা শাকসবজি ও ফল

ফুল ও বীজ

যে কোনো প্রসাদ, যেমন ভাত, খিচুড়ি, দুধ, পঞ্চমির্তম (ফল, মধু, গুড়, বাদাম ও বিভিন্ন মশলার মিশ্রণ), মিষ্টি ক্যান্ডি, বাদাম, গোলমরিচ, নুন, তুলসীপাতা, চিঁড়ের পোলাও (মহারাষ্ট্রে যা পোহা নামে বিখ্যাত)

টাটকা কাঁচা মাংস বা মাছ

বিভিন্ন ধরনের ডাল বা শস্য (যেমন মসুর ডাল, মটর ডাল, কড়াইশুঁটি, কালো জিরে ইত্যাদি)

মধু ও মৌমাছি থেকে তৈরি যে কোনো পণ্য (মধুমিশ্রিত চ্যবনপ্রাশও)

বিভিন্ন ধরনের টনিক

উপরের তালিকায় লিপিবদ্ধ কোনো নিষিদ্ধ দ্রব্য নিয়ে আপনি নিউজিল্যান্ড যেতে চাইলে আপনাকে সেই দ্রব্যের কথা প্যাসেঞ্জার অ্যারাইভ্যাল কার্ডে উল্লেখ করতে হবে। বা আপনি সেই দ্রব্য কোনো জৈবসুরক্ষা বর্জ্য বিনে ফেলে দিতে পারেন।

কী কী জিনিস আপনাকে অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে

আপনার প্যাসেঞ্জার অ্যারাইভাল কার্ডে কিছু জিনিসের উল্লেখ থাকে যা আপনার সঙ্গে থাকলে আপনাকে বলতে হবেই। নিষিদ্ধ বস্তু ছাড়াও যে সব বস্তুর নাম ওই কার্ডে থাকে তা হল –

মিষ্টি ও ওয়েফার

খাদ্যদ্রব্য এবং রান্নার সামগ্রী

গাছ এবং উদ্ভিজ্জ পণ্য

প্রাণীজাত দ্রব্য

বাইরে ব্যবহারের সরঞ্জাম

কোনো দ্রব্য আপনি নিয়ে যেতে পারবেন বা পারবেন না, এ নিয়ে যদি আপনার সংশয় থাকে, তা হলে বিমান থেকে নেমে প্যাসেঞ্জার অ্যারাইভাল কার্ডে সব জানিয়ে দিন। আপনি সঙ্গে করে কী কী জিনিস এনেছেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা  তা পরীক্ষা করে নেবেন। আপনার আনা অনেক দ্রব্য নিয়েই আপনি হয়তো নিউজিল্যান্ডে প্রবেশ করতে পারবেন। আর এই ভাবেই আপনি জরিমানার হাত থেকে রেহাইও পাবেন।

প্যাসেঞ্জার অ্যারাইভ্যাল কার্ড

নিউজিল্যান্ডের বিমাববন্দরে নেমে আপনাকে এই কার্ডটি ফিল আপ করতেই হবে। এর নাম প্যাসেনজার অ্যারাইভ্যাল কার্ড। নিউজিল্যান্ডের জৈব সুরক্ষাকে আঘাত করে, এমন কোনো জিনিস আপনার সঙ্গে আছে কিনা সে সম্পর্কে আপনাকে প্রশ্ন করা হয় ওই কার্ডে। কী কী জিনিস আপনার সঙ্গে আছে, তা বিশদে  জানাতে হবে এই কার্ডে। না জানিয়ে এ রকম কোনো জিনিস নিলেই আপনার অন্ততপক্ষে ৪০০ ডলার জরিমানা হতে পারে।

বিপজ্জনক জিনিসের কথা জানালে কী হয়

আপনার ঘোষিত বহু জিনিস নিয়েই হয়তো আপনি নিউজিল্যান্ডে প্রবেশ করতে পারবেন, যদি সেগুলি ভালো ভাবে প্যাক করা থাকে বা ঠিকঠাক প্রক্রিয়াকরণ হয়। কোয়ার‍্যান্টাইন  অফিসাররা সেই জিনিসগুলি পরীক্ষা করেন এবং দেখে নেন সেগুলি পরিবেশের পক্ষে ক্ষতিকারক কিনা।

আরও পড়ুন আরাকুর জঙ্গলে এ বার নৈশবিহারের সুযোগ

অফিসাররা বিভিন্ন প্রশ্নের মাধ্যমে জেনে নেবেন আপনার দ্রব্যটি সুরক্ষিত কিনা। তাঁরা যদি বোঝেন যে আপনার নেওয়া দ্রব্যটি আদৌ ক্ষতিকর নয়, তা হলে আপনি সেই দ্রব্যটি নিতেই পারেন। আর যদি কোনো দ্রব্য নিতে না পারেন, তাহলে আপনাকে সেগুলি ফেলে দিতে হবে।

নিউজিল্যান্ডে ভারতীয় দ্রব্য

নিউজিল্যান্ডে অনেক ভারতীয় দ্রব্যের দোকান আছে। আপনি ইচ্ছে করলেই সেই দোকান থেকেই জিনিস কিনতে পারেন। অনেক সুপার মার্কেট আছে, যেখান থেকে আপনি জিনিস কিনতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You may also like