অন্য রাজ্য, লেক-জলাশয়

বর্ষায় যোগ ফলসের রূপ কেমন থাকে জানেন? এই ভিডিওটা দেখে নিন

see-the-jog-falls-during-monsoon

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক: ভারতের অন্যতম উচ্চতম জলপ্রপাত কর্নাটকের যোগ জলপ্রপাত। এই জলপ্রপাতটি তৈরি করেছে সারাবতী নদী। কর্নাটকের গেরুসোপ্পায় চারটে স্রোতে ২৫৩ ফুট ঝাঁপ দেয় এই প্রপাত। কিন্তু গত কয়েক বছরে এই প্রপাতটা যেন হারিয়ে যেতে বসেছিল। 

রাজা, রানি, রকেট এবং রোরার, এই চারটে স্রোতে নেমে আসা যোগ  প্রপাতে জল ক্রমশ কমতে শুরু করে দিয়েছিল। এর কারণ প্রাকৃতিক যেমন ছিল তেমনই ছিল কৃত্রিম কারণ। সারাবতী নদীর ওপরে জলাধার তৈরি হওয়ায় চেনা রূপে পাওয়া যাচ্ছিল না যোগকে। কিন্তু এ বার পরিস্থিতি একদম ভিন্ন। এ বার বর্ষায় কর্নাটকে ভালোই বৃষ্টি হচ্ছে। গত কয়েক দিন ধরেই প্রবল বৃষ্টির খপ্পরে পড়েছে গোটা রাজ্য। আর তাতেই যেন নিজের স্বরূপ ধারণ করেছে জলপ্রপাত। 

সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের এই ভিডিওটা দেখুন, বুঝে যাবেন বর্ষায় কেমন থাকে যোগ ফলস। 

নিশ্চয়ই মনে হচ্ছে, একবার বর্ষাতেই যোগ ফলস ঘুরে নিতে। সেটা কিন্তু করতেই পারেন। কারণ এখন অফ-সিজন, তাই ট্রেনে টিকিট পেতে বিন্দুমাত্র অসুবিধা হবে না। সুতরাং হবে না কি যোগ ফলস? 

কী ভাবে যাবেন

কলকাতা থেকে যোগ ফলসের সব থেকে কাছের রেল স্টেশন হচ্ছে কর্নাটকের হুবলি।  হাওড়া থেকে হুবলি যাওয়ার জন্য রয়েছে ১৮০৪৭ আপ অমরাবতী এক্সপ্রেস। ট্রেনটি প্রতি সোম, মঙ্গল, বৃহস্পতি এবং শনিবার রাত সাড়ে এগারোটায় হাওড়া থেকে ছেড়ে হুবলি পৌঁছোয় তৃতীয় দিন সকাল ৮:৫০-এ। হুবলি থেকে যোগ ফলসের দূরত্ব ১৭২ কিমি। বাকি মেট্রো শহরগুলির সঙ্গেও রেলপথে যুক্ত হুবলি। ট্রেনের সময়ের জন্য দেখে নিন erail.in । হুবলি থেকে বাসে বা গাড়ি ভাড়া করে চলুন যোগ।     

কোথায় থাকবেন

যোগ ফলসে থাকার সব থেকে আদর্শ জায়গাটি হল কর্নাটক পর্যটন উন্নয়ন নিগমের ময়ূর গেরুসোপ্পা। এই হোটেলের সব ঘরই যোগ ফলসমুখী। অনলাইনে বুক করার জন্য লগইন করুন kstdc.co-এ। 

0 Comments
Share

Bhramon

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*