ইতিহাস/স্থাপত্য উৎসব

চলুন বিষ্ণুপুর, ২৩ ডিসেম্বর থেকে বসছে মেলা

last year's mela

ইন্দ্রাণী সেন, বাঁকুড়া: জেলার অন্যতম আন্তর্জাতিক মেলায় এ বারের থিম ‘পর্যটন ও হস্তশিল্প’। আগামী ২৩ ডিসেম্বর থেকে ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত রাজ্য পর্যটন বিভাগ, তথ্য ও সংস্কৃতি বিভাগ, বাঁকুড়া জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৩২তম আন্তর্জাতিক বিষ্ণুপুর মেলা শুরু হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বিষ্ণুপুরকে রাজ্য তথা দেশের মানচিত্রে অন্যতম পর্যটনকেন্দ্র হিসাবে তুলে ধরার জন্য ১৯৮৮ সালে বিষ্ণুপুর মেলার সূচনা হয়। কিন্তু বিষ্ণুপুরের খ্যাতি শুধু পর্যটনকেন্দ্র হিসাবে নয়, সংগীত, টেরাকোটা,  বালুচরী আর হস্তশিল্পের জন্যও আন্তর্জাতিক মঞ্চে বিষ্ণুপুরের যথেষ্ট পরিচিতি রয়েছে। বিষ্ণুপুরের এই বৈশিষ্ট্যগুলি  প্রদর্শন, বিপণন, বিকাশের জন্যই এই  বিষ্ণুপুর মেলার সূচনা হয়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে  এই মেলা উন্নত থেকে উন্নততর হয়ে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছে।

আরও পড়ুন: বুলবুলের জের, পাঁচ মাসের বুকিং বাতিল হেনরিজ আইল্যান্ডে

সম্প্রতি বিষ্ণুপুরের মহকুমাশাসক মানস মণ্ডল মেলা নিয়ে  সাংবাদিক সম্মেলন করেন। তিনি জানিয়েছেন, “এ বারের মেলার বাজেট ৬৫ লক্ষ টাকা। প্রতি বারের মতো এ বারেও পর্যটন ও হস্তশিল্পকে বিশেষ প্রাধান্য দেওয়া হবে। এ বারের মেলা সম্পূর্ণ প্লাস্টিকমুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কাগজের ব্যাগ, শালপাতার থালা ব্যবহার করা হবে। এলাকার সাধারণ মানুষকে পরিবেশ রক্ষায় সচেতন করতে এই উদ্যোগ।

এ বারেও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। স্থানীয় ও জেলার শিল্পীদের বাছাই করা হবে  প্রতিযোগিতার মাধ্যমে। তাঁদের পাশাপাশি বিখ্যাত শিল্পী অনুপম রায়, লগ্নজিতা, রাজ বর্মণ সংগীত পরিবেশন করবেন। এ ছাড়া ফকিরা ও ফসিল ব্যান্ডের শিল্পীরা মেলার বিভিন্ন দিনে অনুষ্ঠান পরিবেশন করবেন বলে জানা গিয়েছে।

পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক পৃথক বসার ব্যবস্থা করা হবে এবং মেলায় নিরাপত্তার উপরেও বিশেষ নজর রাখা হবে বলে  প্রশাসন ও মেলা কমিটি সূত্রে জানা গিয়েছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You may also like