উত্তর সিকিম বেড়াতে যাবেন? পরিকল্পনা বাতিল করুন

ভ্রমণ অনলাইনডেস্ক: উত্তর সিকিম বেড়াতে যাওয়ার প্রস্তুতি সারা? সব বুকিং-ও হয়ে গিয়েছে। কোনো উপায় নেই। ভ্রমণ কর্মসূচি বাতিল করতে হবে। আর এখন কেউ উত্তর সিকিম যাওয়ার প্ল্যানও করবেন না। কারণ, করোনাভাইরাস।       

শুধুমাত্র বিদেশি পর্যটক নয়, এ বার দেশের অন্য রাজ্যের পর্যটকদের ক্ষেত্রেও বিধিনিষেধ জারি হল সিকিমে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

উত্তর সিকিমে বেড়াতে যাওয়ার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। উত্তর সিকিমের দুই জুমসা (Dzumsa), এক যোগে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। লাচুং জুমসা আর লাচেন জুমসা, দুটোই ঘোষণা করেছে যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে আপাতত দেশের কোনো অঞ্চলের পর্যটকই আর সেখানে ঢুকতে পারবেন না।

শুধু পর্যটকই নন, বিধিনিষেধ জারি হয়েছে শ্রমিকদের ক্ষেত্রেও। তবে লাচুং জুমসা ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা জারি রাখার কথা ঘোষণা করলেও লাচেন জুমসা কোনো তারিখ ঘোষণা করেনি। জুমসা হল সিকিম সরকার স্বীকৃত স্থানীয় নিজস্ব সরকার বা ‘লোকাল সেলফ গভর্নমেন্ট’। জুমসা যা সিদ্ধান্ত নেবে সিকিম সরকার তা মানতে বাধ্য।

আরও পড়ুন: ঘুরে আসুন প্রকৃতির কোলে শৈলশহর হাফলঙ

এর পাশাপাশি, আসন্ন রেড পাণ্ডা ফেস্টিভ্যালও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ১৩ মার্চ থেকে থেকে কার্যকর হচ্ছে নয়া নিয়ম।

পর্যটন শিল্পে এই নিষেধাজ্ঞার ফলে বড়ো প্রভাব পড়বে৷ কিন্তু সিকিম সরকার তাদের রাজ্যের নাগরিকদের স্বাস্থ্যের বিষয়ে বেশি উদ্বিগ্ন। তাই এই সিদ্ধান্ত।

উল্লেখ্য, গত ৫ মার্চ থেকে বিদেশি পর্যটকদের ঘোরার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করে সিকিম সরকার। এমনকি বন্ধ রয়েছে ভারত-চিন নাথু লা সীমান্তের দরজাও। বেশ কয়েকটি বৌদ্ধ মঠও পর্যটকদের জন্য আপাতত বন্ধ।

এখনও সিকিমে করোনা আক্রান্তের খবর নেই। কিন্তু দেশ-বিদেশের পর্যটকদের প্রবেশে ভাইরাস ছড়ানোর আশঙ্কায় এই সিদ্ধান্ত। এখনও পূর্ব, পশ্চিম আর দক্ষিণ সিকিমে কোনো বিধিনিষেধ জারি না হলেও, সেখানেও এ রকম কিছু জারি হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

Leave a Reply