পাপিয়া মিত্র একে একে সকলেই মেজাজ হারাচ্ছে। অনেক আগেই লামাকে বলে দেওয়া হয়েছিল ছোটো গাড়ি নীচে নামিয়ে রাখতে। লামা তা করেনি। মুনথুম হোমস্টের মুখের চারশো

আরও পড়ুন

পাপিয়া মিত্র বিজনবাড়ির ব‍্যাম্বু রিসর্টের ৫ নম্বর কটেজের বিছানায় শুয়েই যেন রঙ্গিতকে ছোঁয়া যায়। বরং বলা ভালো এখানে নদী এসে মিশেছে ঘরের দাওয়ায়। সকালে ঘুম

আরও পড়ুন

পাপিয়া মিত্র ঝিনঝিনে বৃষ্টি মাথায় পাচেং ছাড়লাম। এ বার যাব বিজনবাড়ি। আলুর পরোটা আর ঘরে পাতা টকদই সহযোগে প্রাতরাশ সারলাম। দু’টি রাতদিনের মাঝে কখন যে

আরও পড়ুন

পাপিয়া মিত্র আবছায়া বাঁশের কুটিরে দীর্ঘ পথের বিশ্রাম। বাইরে শ্রাবণের রিমঝিম সুর। টুকটুক করে ঘরে ঢুকে লাফিয়ে একবারে খাটে। খাট থেকে কোলে। তুলতুলে শরীর নিয়ে

আরও পড়ুন

শ্রয়ণ সেন ডাইনিং হল তো না, এ তো ইতিহাসে পড়া সেই প্রস্তরযুগ! টেবিল, চেয়ারগুলো দেখে মনে হচ্ছে চারিদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে নানা আকারের শিলাখণ্ড। সেখানেই বসে

আরও পড়ুন

শ্রয়ণ সেন ‘চায়ের কাপে তুফান তোলা বাঙালি’ যদি কোনো নামী চায়ের কাফের পাশ দিয়ে যায়, এক বার ঢুঁ মারবেই। আমরাও ব্যতিক্রম নই। ঢুকে পড়েছি মালবাজারের

আরও পড়ুন

শ্রয়ণ সেন মাত্র ৪৭ কিলোমিটার রাস্তা। সাধারণত পাড়ি দিতে সময় লাগে বড়োজোর ঘণ্টা আড়াই। কিন্তু আমাদের সেটাই লাগল সাড়ে চার ঘণ্টা। আজ সকালে মুনথুম থেকে

আরও পড়ুন

শ্রয়ণ সেন পাহাড়ের ঢালে ধাপে ধাপে কয়েকটি বাঁশের কটেজ। সব থেকে ওপরের কটেজটি রাস্তা থেকে কিছুটা নেমেই। আর সব থেকে নীচের কটেজে যেতে হলে এই

আরও পড়ুন

শ্রয়ণ সেন বর্ষায় পাহাড়কে অন্য রকম ভাবে চেনার জন্য এই সফর করছি আমরা। বেছে নিয়েছি এমন কিছু জায়গা যা বাধা গতের টুরিস্ট সার্কেলের বাইরে। এমনই

আরও পড়ুন

অশোককুমার কুণ্ডু এমন সুযোগ কদাচ মেলে। সুবর্ণ সুযোগ। হ্যাঁ, একজন জৈন দিগম্বর দাঁড়িয়ে আছেন। আমজনতার স্নান দেখছেন। উদাস দৃষ্টি। জনস্রোত আর গঙ্গার স্রোত মিশে বয়ে

আরও পড়ুন