অন্য রাজ্য লেক-জলাশয়

সবুজ প্রকৃতি আর জলাধার নিয়ে গাংরেল, চলুন এই বর্ষায়

ভ্রমণঅনলাইন ডেস্ক বর্ষায় দু’-তিনটে কাটিয়েই আসতে পারেন ছত্তীসগঢ়ের এই সুন্দর জায়গাটা থেকে। ভরা বর্ষায় মোহময় রূপ ধারণ করে গাংরেল। মহানদীর ওপর গাংরেল তথা রবিশংকর বাঁধ ও জলাধার। ছত্তীসগঢ়ের দীর্ঘতম বাঁধ গাংরেল, দেড় কিমি লম্বা।  বর্ষার জলে পুষ্ট হয়ে এখানকার প্রকৃতি হয়ে ওঠে সবুজ। রয়েছে অনেক নাম-না-জানা দ্বীপ। ভেসে পড়ুন নৌকা নিয়ে। কিংবা মেতে উঠুন জলক্রীড়ায়। সূর্যোদয় আর সূর্যাস্ত উপভোগ করতে ভুলবেন না।

কী ভাবে যাবেন

গাংরেল ছত্তীসগঢ়ের রাজধানী রায়পুর থেকে ৯০ কিমি এবং ধামতারি শহর থেকে ১৫ কিমি দূরে। রায়পুর দেশের প্রায় সব বড়ো শহরের সঙ্গে ট্রেনপথে যুক্ত। বিমানও নামে রায়পুরে। হাওড়া থেকে রয়েছে এক গুচ্ছ ট্রেন, সময় লাগে সাড়ে ১২ ঘণ্টা থেকে সাড়ে ১৫ ঘণ্টা। ট্রেনের সময়ের জন্য দেখে নিন erail.in। রায়পুর থেকে গাড়ি ভাড়া করে পৌঁছে যেতে পারেন গাংরেল। অথবা রায়পুর স্টেশন থেকে বাসে চলুন ধামতারি। সেখান থেকে গাড়ি ভাড়া করে চলুন গাংরেল।

বরডিহা লেক ভিউ রিসর্ট।

কোথায় থাকবেন

গাংরেলে রয়েছে ছত্তীসগঢ় পর্যটনের বরডিহা লেক ভিউ  রিসর্ট। দিনপ্রতি ভাড়া একশয্যা ১২০০ টাকা, দ্বিশয্যা ১৫০০ টাকা, তিনশয্যা ১৮০০ টাকা। কাঠের কটেজ একশয্যা ৪০০০ টাকা, দ্বিশয্যা ৫০০০ টাকা, কটেজে অতিরিক্ত পর্যটক ৮০০ টাকা। অনলাইন বুকিং  visitcg.in ।

মনে রাখবেন

রিসর্টে চেক ইন দুপুর ২টো, চেক আউট বেলা ১১টা।

আরও পড়ুন  সুন্দরবন ছাড়াও ঘরের কাছে রয়েছে আরও এক ম্যানগ্রোভ অরণ্য, এই সপ্তাহান্তে চলুন…

 

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You may also like