পশ্চিমবঙ্গ, ভ্রমণের খবর

পশ্চিমবঙ্গ পর্যটনের প্যাকেজে চলুন শান্তিনিকেতন, ঝাড়গ্রাম, জানুন বিস্তারিত

west-bengal-tourisms-package-on-birbhum-and-jhargram

কলকাতা: যাবেন না কি বীরভূমের শক্তি পীঠ দেখতে? ইচ্ছে করছে একটু ঝাড়গ্রামটা ঘুরে দেখতে? তাহলে আর দেরি কেন, বুক করে নিন পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগমের প্যাকেজগুলি। 

প্যাকেজগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেওয়া হল। 

১) শক্তি ট্রেল প্যাকেজ

রওনা- ৯ নভেম্বর, ফেরা- ১১ নভেম্বর

tarapith wbtdc

এই প্যাকেজে শান্তিনিকেতনের পাশাপাশি বীরভূমের শক্তি পীঠগুলো আপনাদের দেখানো হবে। প্রথম দিন সকাল আটটায় বি বাদি বাগের ট্যুরিজম সেন্টার থেকে যাত্রা শুরু। মধ্যাহ্নভোজনের আগেই পৌছনো শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজ। বাকিটা দিন আপনি নিজের মতো শান্তিনিকেতন ঘুরে নিতে পারেন। রাত্রিবাস টুরিস্ট লজে।

দ্বিতীয় দিন সকাল সাতটায় রওনা। প্রথম গন্তব্য তারাপীঠ। তারা মায়ের মন্দিরে পুজো দিয়ে এ বার আপনি যাবেন নলহাটি। এখানে নলাটেশ্বরী মন্দির দর্শন করে আপনাকে নিয়ে যাওয়া হবে সাঁইথিয়া। এখানে আপনি দেখবেন নন্দীকেশরী মন্দির। সিউরিতে মধ্যাহ্নভোজনের বিরতির পর আপনাকে নিয়ে যাওয়া হবে বক্রেশ্বর। এখানে মন্দির ও উষ্ণপ্রস্রবণ দেখে আপনি ফিরে আসবেন শান্তিনিকেতন। রাত্রিবাস শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজে।

তৃতীয় দিন সকাল সাড়ে সাতটায় রওনা। এ দিন আপনার প্রথম গন্তব্য কঙ্কালিতলা মন্দির। কঙ্কালিতলা থেকে আপনাকে নিয়ে যাওয়া হবে লাভপুরের ফুল্লরা মন্দিরে। সেখান থেকে ফিরে এসে মধ্যাহ্নভোজন হবে শান্তিনিকেতন টুরিস্ট লজে। মধ্যাহ্নভোজনের পরেই কলকাতার উদ্দেশে যাত্রা।

পুরো প্যাকেজে জনপ্রতি ভাড়া ধার্য হয়েছে ৭,৫০০ টাকা। এই ভাড়ায় এসি বাসে যাত্রা, এসি ঘরে রাত্রিবাস এবং প্রাতরাশ। তবে মধ্যাহ্নভোজন এবং নৈশভোজের ভাড়া নিজেদের বহন করতে হবে।

২) ঝাড়গ্রাম প্যাকেজ

রওনা- ৬ অক্টোবর এবং ১০ নভেম্বর, ফেরা- ৭ অক্টোবর এবং ১১ নভেম্বর

chilkigarh

প্রথম দিন সকাল ৮টায় যাত্রা শুরু। ওই দিন আপনার গন্তব্য ঝাড়গ্রামের রাজবাড়ি টুরিস্ট বাংলো। তার আগে রামেশ্বর মন্দির, তপোবন এবং হাতিবাড়ি দেখানো হবে আপনাকে। মধ্যাহ্নভোজন হবে হাতিবাড়িতে।

দ্বিতীয় দিন মধ্যাহ্নভোজনের আগে ঝাড়গ্রামের লোকাল সাইটসিয়িং করানো হবে। দেখানো হবে চিল্কিগড়, কনকদুর্গা মন্দির, সাবিত্রী মন্দির।  মধ্যাহ্নভোজনের পর কলকাতার উদ্দেশে যাত্রা।

এই প্যাকেজে মোট খরচ জনপ্রতি ৪,০০০ টাকা। যাতায়াত, রাত্রিবাস, প্রাতরাশ এবং একটি মধ্যাহ্নভোজনের খরচ ধরা আছে এখানে। নৈশভোজ এবং অন্য একটি মধ্যাহ্নভোজ অতিরিক্ত।

এই দুটি প্যাকেজ ছাড়াও আগামী ১৯ আগস্ট ইলিশ উৎসবের আয়োজন করেছে রাজ্য পর্যটন উন্নয়ন নিগম। ওই দিন সকাল ১১টায় নিউ বাবুঘাট জেটি থেকে লঞ্চ ছাড়বে। নৌবিহারের পাশাপাশিই হবে ইলিশ দিয়ে ভোজন। তিন ঘণ্টার এই প্যাকেজ শেষ হবে দুপুর দুটোয়। এই প্যাকেজে মোট খরচ জনপ্রতি ১৭০০ টাকা।

অনলাইনে প্যাকেজগুলি বুক করার জন্য লগইন করুন www.wbtdcl.com-এ. 

 

0 Comments
Share

Bhramon

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*