পশ্চিমবঙ্গ ভ্রমণের খবর

গজলডোবার ‘ভোরের আলো’য় শুরু হয়ে গেল অনলাইন বুকিং

bhorer alo gajoldoba
ভ্রমণ অনলাইনডেস্ক: গত ৩ অক্টোবর গজলডোবায় চালু হয়েছে পর্যটন প্রকল্প ‘ভোরের আলো‘। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত দিয়ে ওই নতুন প্রকল্পের উদ্বোধনের পরই চালু হয়ে গেল অনলাইনে বুকিং পরিষেবা। ফলে পুজোর ছুটিতে নির্ভেজাল আনন্দের টানে ভোরের আলোয় থাকার প্ল্যান থাকলে নিতে পারেন ওই অনলাইন পরিষেবার সুবিধা।
ভোরের আলোয় রয়েছে পাঁচটি কটেজ এবং দু’টি এসি টেন্ট। কটেজের ভাড়া প্রতি রাতের জন্য মাত্র আড়াই হাজার টাকা। সঙ্গে ১৮ শতাংশ হারে জিএসটি। কটেজে পাওয়া যাবে ওয়েস্টার্ন স্টাইলের টয়লেট-সহ অ্যাটাচড বাথরুম। আর ২৪ ঘণ্টা জেনারেটর ব্যবস্থা তো থাকছেই। অন্য দিকে এসি টেন্টে থাকতে হলে আপনাকে খরচ করতে হবে মাত্র ১১০০ টাকা। তবে যদি নিজের পছন্দ মতো দিনে কটেজ বা টেন্ট খালি থাকে তবেই মিটতে পারে মনের খিদে।
তাই অনলাইনের বুকিং পরিষেবার মাধ্যমে প্রথমেই জেনে নেওয়া যেতে পারে আপনার পছন্দের নির্দিষ্ট দিনটিতে কোনো কটেজ বা টেন্ট ফাঁকা রয়েছে কি না। যদি না পান একই সঙ্গে জেনে নেওয়া যাবে কোন কোন দিন তা পাওয়া যেতে পারে। ক্লিক করুন পশ্চিমবঙ্গ পর্যটন উন্নয়ন নিগমের এই লিঙ্কে:হোম ভোরের আলো অনলাইন বুকিং
আরও পড়ুন  গজলডোবায় চালু হল ‘ভোরের আলো’, দেখে নিন কিছু ছবি
বলে রাখা ভালো, কটেজগুলি ছাড়াও বৈকুণ্ঠপুর জঙ্গলে সাইক্লিং এবং বোটিং প্রকল্পেরও সূচনা করে দেওয়া হয়েছে। কটেজগুলি রাজ্য পর্যটন নিগমের অন্তর্গত। শুরুতে অনলাইন বুকিং পরিষেবা চালু না হলেও বুকিংয়ের জন্য নির্ধারিত ৮৯৪২৮৪৪৫১৬ ফোন নম্বরে অনবরত আগ্রহীরা ফোন করতে থাকেন। নিগমের কর্তারা জানিয়েছেন, অনলাইন বুকিং চালু হওয়ার পরেও ওই ফোন নম্বরেও সমান ভাবে জেনে নেওয়া যাবে বিশদ তথ্য।
Booking.com

Leave a Comment

Your email address will not be published.

You may also like