ঘুরে আসুন পৃথিবীর দীর্ঘতম পাখির স্থাপত্য কেরালা জটায়ু থিম পার্ক

  • by

ভ্রমণ অনলাইন ডেস্ক:  কেরালা রাজ্যের কোল্লমের ছাদায়ামঙ্গলমে পৃথিবীর সবচেয়ে উঁচু পাখি স্থাপত্য “দি জটায়ু” হল, রামায়ণ মহাকাব্যের ওপর বানানো একটি থিম পার্ক। থিরুবনন্তপুরম শহর থেকে ছাদায়ামঙ্গলম জায়গাটির দূরত্ব ৫০ কিলোমিটার। এই পার্কে মহাকাব্যের যুগের বিভিন্ন কাহিনির নিদর্শন, শিল্প, সংস্কৃতি ইত্যাদির নিদর্শন পাওয়া যায়।

অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় মানুষের জন্য এই জায়গাটি আদর্শ। এছাড়া নিছকই ঘুরতে বা পিকনিক করতেও যেতে পারেন এই পার্কে। একটি মিউজিয়ামও রয়েছে এই পার্কে।

এই পার্কের আকর্ষণীয় অংশ হলো বিশাল এই জটায়ু পাখির স্থাপত্যটি। এই পৌরাণিক পাখি চরিত্রটি রামায়ণের এক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র। যখন লঙ্কারাজ রাবণ সীতাকে অপহরণ করে নিয়ে যাচ্ছিলেন, তখন এই জটায়ু পাখি সীতা মাকে বাঁচানোর জন্যে রাবণ রাজের সাথে অনেক যুদ্ধ করেছিলেন। কিন্তু শেষে রাবণের শক্তির কাছে তিনি হেরে যান এবং গুরুতর আঘাত নিয়ে তিনি পাহাড়ের গায়ে পড়ে যান।

এই পার্কটির নকশা এঁকেছেন রাজীব আঁচল। তিনি হলেন একজন বিখ্যাত মালয়ালাম চিত্রপরিচালক এবং চিত্রনাট্যকার । এর পাশাপাশি তিনি  একজন ভাস্করও বটে।

কী কী রয়েছে এই পার্কে?

এই পার্কে কেবল কারে চড়ার ব্যাবস্থাও আছে। এই কেবল কার থেকে পাখির চোখের মতো চারপাশের দৃশ্য দেখতে পাবেন। আবার হেলিকপ্টারের ব্যাবস্থাও রয়েছে এখানে।

প্রাকৃতিক ভূখন্ডের ওপর অবস্থিত এই পার্কে অ্যাডভেঞ্চারের নানারকম ব্যাবস্থা আছে। উপত্যকার মধ্যে দিয়ে হাঁটা, ট্রেকিং, জিপ লাইন, পেন্ট বল, রেপলিং, ওয়াল ক্লাইম্বিং ইত্যাদির ব্যাবস্থা ।

এই পার্কটি পাহাড়ের গায়ে তৈরি হওয়ার জন্যই পাহাড়ের বিভিন্ন প্রাকৃতিক পাথুরে ভূমির ওপর এই অ্যাডভেঞ্চারের সুবিধা আছে। এছাড়া আধ্যাত্মিক বিষয়ে আগ্রহী পর্যটকদের জন্য রয়েছে একটি গুহা। শুধু তাই নয়, খাদ্যরসিকদের জন্যেও রয়েছে একটি রেস্তরাঁ। সুস্বাদু খাবার খেতে খেতে প্রাকৃতিক দৃশ্য দেখা, আর কী চাই!

আরও পড়ুন :

চেনা ছকের বাইরে: ঘুরে আসুন লঙ্কারাজ রাবণের মন্দিরে

পটের বিবি-সাহেব-গোলাম, চলুন পটের গ্রাম নয়া

কীভাবে যাবেন?

জটায়ু থিম পার্ক পৌঁছানো খুব কঠিন নয়। নিকটতম রেলস্টেশন হল কোল্লম। এই স্টেশন থেকে জটায়ু থিম পার্কের দূরত্ব ৩৮ কিলোমিটার। এছাড়া এই পার্কের নিকটতম বিমানবন্দর হল থিরুবনন্তপুরম বিমানবন্দর যার দূরত্ব এই পার্ক থেকে ৫১ কিলোমিটার। রেলস্টেশন বা বিমানবন্দর-এর বাইরে এসে অটো বা গাড়ি ভাড়া করেই চলে আসতে পারবেন জটায়ু থিম পার্ক।

Leave a Reply